সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো বৌদ্ধ সমাজ গগণের সূর্য

সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো বৌদ্ধ সমাজের অভিবাবক, বৌদ্ধ নেতা। তিনি বাংলাদেশের বৌদ্ধ সমাজ গগণের সূর্য। পৃথিবীতে সূর্য যেমন আকাশে উদিত হয়ে পৃথিবীর সবার জন্য তার আলো দান করে তেমনি সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো এদেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায় ও সকল ধর্মের মানুষের মাঝে তাঁর  প্রেম, প্রীতি,মৈত্রী, ভালোবাস ও মানব সেবার হাত প্রসারিত করেছেন।

গতকাল ১৫ জানুয়ারি নগরীর মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি, বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার ২৮তম সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরোর ৮৬তম জন্মোৎসব ও গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন।

বক্তারা আরো বলেন,  সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো ভৌগলিক সীমারেখা ছাড়িয়ে তাঁর অপরিসীম ত্যাগমহিমার কর্মপ্রতিভা আজ বিশ্বস্বীকৃত। অশ্রুসিক্ত সহস্র মানুষের হৃদয়ে অনন্তকাল চির জাগরূক থাকবেন তিনি।

থাইল্যাণ্ড থেকে আগত ভদন্ত ফরা ভুনসুং উপসামো (Venerable Phra Boonsong Upasamo) সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম. নাছির উদ্দিন। স্বাগত ভাষণ রাখেন বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের মহাসচিব অধ্যক্ষ ড. প্রণব কুমার বড়ুয়া।

বিশেষ অতিথিবৃন্দের মধ্যে ছিলেন স্বামী শক্তিনাথানন্দজী মহারাজ, রেভারেন্ড মোজেস এম. কস্তা, অজিত রঞ্জন বড়ুয়া, লায়ন রূপম কিশোর বড়ুয়া, ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া ও লায়ন আদর্শ কুমার বড়ুয়া। সম্মানিত অতিথিবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত Ms. Panpimon Suwannapongse, WFBY (থাইল্যান্ড) এর প্রেসিডেন্ট  Mr. Denphong Suwannachairop, সেক্রেটারী Mr. Idanont Thaiarry, বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার মহাসচিব ভদন্ত বোধিমিত্র মহাথের, ড. বুদ্ধপ্রিয় মহাথের, প্রমথ বড়ুয়া প্রমুখ।

দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে সকাল ৯টায় শুরু হয় সংঘদান ও সংবর্ধেয় সংঘনায়কের ৮৬তম জন্মোৎসব অনুষ্ঠান। বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার সভাপতি সুনন্দ মহাথেরোর সভাপতিত্বে সভায় উদ্বোধক ছিলেন বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার উপসংঘনায়ক অধ্যাপক বনশ্রী মহাথের। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভা সহ-উপসংঘনায়ক সদ্ধর্মরশ্মি রতনশ্রী মহাথের।

স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন প্রফেসর ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া। শ্রদ্ধা নিবেদন করে বক্তব্য রাখেন ভদন্ত জ্ঞানানন্দ মহাথের, ভদন্ত অভয়ানন্দ মহাথের, ভদন্ত সুমিত্তানন্দ থের, পি.আর বড়ুয়া, প্রফেসর ড. সুকোমল বড়ুযা, প্রকৌশলী মৃণাল কান্তি বড়ুয়া, লায়ন মৃদুল কান্তি চৌধুরী, প্রকৌশলী মৃগাঙ্ক প্রসাদ বড়ুয়া, দেবপ্রিয় বড়ুয়া, রণজিৎ কুমার বড়ুয়া, আশীষ কুমার বড়ুয়া প্রমুখ।

জন্মোৎসব উদযাপন পর্বে ৮৬ পাউন্ডের কেক কাটা হয়। এ সময় ওড়িশী এন্ড টেগর ডান্ড মুভমেন্ট সেন্টার এর শিল্পীরা সমবেত নৃত্য পরিবেশন করে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দ্বিতীয় রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদক, থাইল্যাণ্ড সরকারের রাজকীয় সর্বশ্রেষ্ঠ উপাধি ফ্রা বিশুদ্ধিবংশ এবং মিয়ানমার সরকারের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উপাধি অগ্গমহাসদ্ধম্মজ্যোতিকাধ্বজ উপাধিতে ভূষিত হওয়ায় এবং ৮৬ তম জন্মোৎসব উপলক্ষে এ গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!