শিষ্যসহ ড. দীপংকর ভান্তেকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ!

রাঙামাটির বিলাইছড়িতে ড. দীপংকর ভান্তের অনুসারীদের এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেওয়াসহ নানাভাবে হয়রানি  অভিযোগ পাওয়া গেছে এবং উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের এগুজ্জ্যাছড়ি গ্রামে দীপংকর ভান্তের কুটির নির্মাণকে কেন্দ্র করে রবিবার জেএসএসের সদস্যরা সাতটি পানের বরজ পুড়িয়ে দেয়ার ক্ষতিগ্রস্তদের অভিযোগের ভিত্তিকে এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দেশের একটি নিউজ পোর্টাল বাংলাট্রিবিউন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই এলাকার মানুষের অভিযোগ একটি আঞ্চলিক দলের সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে দেশনা (উপদেশমূলক বক্তব্য) দেওয়ায়, দলটির সমর্থকরা ভান্তের অনুসারিদের নানাভাবে হয়রানি করছে।ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের লোকজনের দাবি,৫ থেকে ৬ একর জমির উপর তাদের এ ৭টি পানের বরজ ছিল। যার বাজার ছিল মূল্য ৩০ থেকে ৪০ লাখ টাকা।

প্রাণের ভয়ে এখনও কেউ থানায় অভিযোগ করেনি।

আগুন দেওয়ার বিষয়ে ফারুয়া ইউনিয়নের এগুজ্জাছড়ি গ্রামের ‘স্ব ধর্ম সুরমা যুব পরিষদে’র প্রধান সম্বন্বয়ক হৃদয় বিকাশ তঞ্চঙ্গা জানিয়েছেন,‘ড. দীপংকর ভান্তে একটি কুটির তৈরি করে ধর্মের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন, তিনি সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, মানুষ হত্যা ও মদ পান না করার জন্য সব সময় বলে থাকেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি পানের বরজ পুড়িয়ে দেওয়ায় ফারুয়ার জেএসএস এর সভাপতি চন্দ্র তঞ্চঙ্গাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিরা হলেন, তেজেন্দ্র লাল তঞ্চঙ্গা, মধু কুমার তঞ্চঙ্গা, প্রদীপ তঞ্চঙ্গা (অত্তা), মিলন তঞ্চঙ্গা। তবে মামলা করেও কোনও কিছু হচ্ছে না, এখন পর্যন্ত পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি।’

বিলাইছড়ি থানার অফিসার ইসচার্জ (ওসি) মো. নাসির উদ্দিন জানান, সোমবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত করে আসবে। দুর্গম এলাকা হওয়ার কারণে অভিযান চালানো খুব কঠিন।

তারা জেএসএস কর্মী কিনা সেই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘অভিযোগকারীরা বলছে। আমরা তদন্ত করে দেখছি।’

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!