রাঙামাটিতে প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপনের মধ্য দিয়ে শুরু হলো দানোত্তম কঠিন চীবর দানোৎসব

সুপ্রিয় চাকমা শুভ, রাঙামাটি জেলা প্রতিনিধি ঃ
বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় ও সামাজিক উৎসব ‘শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা’। আত্মশুদ্ধির অনুষ্ঠানটি হাজার হাজার ভক্তদের পূজার মধ্যে দিয়ে প্রতি বছর ন্যায় এবারেও বিভিন্ন ধর্মীয় ভাব মর্যাদায় রাঙামাটি রাজবন বিহারে অন্যতম দিন প্রবারণা পূর্ণিমা পালিত হয়েছে। ৫ই অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) রাঙামাটি রাজবন বিহার কার্যনির্বাহী পরিষদের আয়োজনে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। বাংলাদেশের বিভিন্ন ¯’ান থেকে হাজার হাজার পূর্ণাথীদের সমাগমে মুখরিত ও জাঁকজমকপূর্ণ হয়ে উঠেছে বিহার প্রাঙ্গন। এছাড়া রাজবন বিহারে অন্যতম আকর্ষণ তাবতিংস স্বর্গঘরটি বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের উন্মুক্ত করে দেওয়ায় আরোও মুখরিত হয়েছে পবিত্র বৌদ্ধ তীর্থ ¯’ানটি ।
সকাল ৬ ঘটিকার সময়ে বুদ্ধ পতাকা উত্তোলন করা হয় এবং ৯ ঘটিকার সময়ে রাঙামাটি রাজবন বিহার প্রাঙ্গনে ভিক্ষু শ্রামনদের উপ¯ি’তিতে মধু মঙ্গল চাকমা অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান সূচনা করা হয়। অকুশল কর্মকে বর্জন করে কুশলকে বরণের উৎসব এ যেন মহা ধর্মীয়ৎসব। প্রবারণা পূর্ণিমা হলো ভিক্ষু সংঘের তিন মাস বর্ষাবাস অবসানে আত্মশুদ্ধির মাধ্যমে বহুজন হিতায় বহুজন সুখায় আদর্শে বলীয়ান হয়ে দিকে দিকে শান্তি ও মৈত্রীর বাণী প্রচারের জন্য আত্মনিয়োগ করার অনুষ্ঠান। এ পূর্ণিমা তিথিতে তিন মাসব্যাপী তথাগত বুদ্ধ তাবতিংস স্বর্গে মাতৃদেবীকে অভিধর্ম দেশনার পর বহুজন হিত, সুখ ও কল্যাণে স¦ধর্ম প্রচারের জন্য বুদ্ধ ভিক্ষু সংঘকে নির্দেশ প্রদান করেছিলেন। আজ ৫ই অক্টোবর (বৃহস্পতিবার)) ভিক্ষু সংঘের সেই তিনমাস বর্ষাবাসের পরিসমাপ্তির দিন। কাল থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বৌদ্ধ প্রধান দেশসমূহ এবং অন্যান্য দেশের বৌদ্ধ বিহারগুলোতে শুরু হবে মাসব্যাপী দানোত্তম কঠিন চীবর দান। এ লক্ষ্যে রাজবন বিহার সহ তিন পার্বত্য জেলায় একযোগে সকল বৌদ্ধ বিহারসমূহে দেশের সব বৌদ্ধ বিহারে যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় ‘শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা’ উদযাপিত হয়েছে। এমনকি শুরু হবে বিশাখার সেই কঠিন চীবর দানোৎসব।
প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ধর্মীয় সংগীত পরিবেশন করেন বিশিষ্ঠ সুরকার ও সংগীত শিল্পী রনজিৎ দেওয়ান। পঞ্চশীল প্রার্থনার পর বাংলাদেশের সমগ্র মানব জাতির শান্তি মঙ্গলার্থে পাঁচ মিনিট ভাবনা করা হয় । অনুষ্ঠানে শুভে”ছা বক্তব্য ও বিশেষ প্রার্থনা পাঠ করেন রাঙামাটি রাজবন বিহারের কার্যনির্বাহী পরিষদেরসিনিয়র সভাপতি গৌতম দেওয়ান। স্বধর্ম দেশনা প্রদান করেন রাঙামাটি রাজবন বিহারের আবাসিক প্রধান ও ভিক্ষু সংঘের প্রধান প্রজ্ঞালঙ্কার মহা¯’বির ও জ্ঞানপ্রিয় মহা¯’বির ভিক্ষু।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশরে সকল সম্প্রদায় ও বিশ্ব জাতির মঙ্গল ও অতীতে দেব মানুষ্য মুক্তির কামনায় বুদ্ধ মূর্তি দান, হাজার প্রদীপ দান, অষ্ঠপরিষ্কার দান, ফানুস বাত্তি উৎস্বর্গ, বিশ্ব শান্তির প্যাগোডার টাকা দান ও পিন্ডুদান সহ নানা বিধ দান অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া দানের পর্ব শেষে ২ জন বৌদ্ধ ভিক্ষুকে মহা¯’বির ও ৬ জন বৌদ্ধ ভিক্ষুকে ¯’বির বরণ করা হয়েছে।
 
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা, বিশেষ অতিথি হিসেবে সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী মণি স্বপন দেওয়ান, রাঙামাটি রাজবন বিহার কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি গেীতম দেওয়ান, রাঙামাটি রাজবন বিহার কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম নিরুপা দেওয়ান প্রমূখ উপ¯ি’ত ছিলেন।
সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!