রত্নাংকুর বনবিহারে শুভ বৈশাখী পূর্ণিমা ও বুদ্ধধাতু পরিভ্রমণ

সুজন চাকমা, নানিয়ারচর প্রতিনিধিঃ গতকাল নানিয়ারচর রত্নাংকুর বনবিহারে বুদ্ধের তৃস্মৃতি বিজরিত শুভ বৈশাখী পূর্ণিমা ও রাজা-মন্ত্রী সাজোয়ানে পদ্মফুলের অাসনে করে বুদ্ধের ধাতু পরিভ্রমণ অনু্ষ্ঠান অায়োজন করা হয়।
 
আজ অনু্ষ্ঠানে সকাল ৭:০০ ঘটিকার সময়ে বুদ্ধের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সকালে বৈশাখী পূর্ণিমা অনু্ষ্ঠানের সূচনা করা হয়। অনু্ষ্ঠানের মধ্য ছিল বুদ্ধ পূজা, সীবলী পূজা, বুদ্ধ মূর্তি দান, সংঘদান, অষ্টপরিষ্কার দানসহ নানাবিধ দান করা হয়।
 
বিকাল ২:৩০ সময়ে তথাগত ভগবান বুদ্ধের ধাতুটি পদ্মফুলের সাজোয়ানে রত্নাংকুর বনবিহারের চতুরপার্শে ঘোড়ানো হয়। তারপরে মূল অনু্ষ্ঠানের পর্ব অারাম্ভ হয়। শুরুতে অনু্ষ্ঠানের উপস্থাপক কমল মাস্টার স্বাগত বক্তব্য দেন – তিনি বৈশাখী পূর্ণিমায় বুদ্ধের জন্ম, বুদ্ধত্বলাভ, ও বুদ্ধের মহাপরিনির্বাণ কথা ব্যাখ্যা করেন।
 
পরে পঞ্চশীলে পরিশুদ্ধ হয়ে বুদ্ধ পূজা, সীবলী পূজা, বুদ্ধ মূর্তি দান, সংঘদান, অষ্টপরিষ্কার দানসহ নানাবিধ দান, হাজারবাতি প্রজ্জোলন ও ফানুস বাতি উত্তোলন করা হয়।
 
অনু্ষ্ঠানে শ্রীমৎ ভৃগু মহাস্থবির ও রত্নাংকুর বিহার অধ্যক্ষ শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির সহ তাঁর স্বশিষ্যবর্গ দেশনা প্রদান করেন উপাসক-উপসিকার উদেশ্য। শ্রীমৎ বিশুদ্ধানন্দ মহাস্থবির দেশনায় বলেন – ‘বৌদ্ধ জাতির জন্য এই দিনটি একটি গুরুত্বপূর্ণ দিন। এই বৈশাখী পূর্ণিমায় বুদ্ধের তৃস্মৃতি বিজরিত।’ সকল প্রাণীর সুখ, শান্তি কামনা করে তাঁর স্বধর্ম দেশনা সমাপ্তি করেন।
 
উলেখ্য বুদ্ধ পূর্ণিমা বা বৈশাখী পূর্ণিমা বৌদ্ধদের সর্বপ্রদান ও সর্বশ্রেষ্ঠ পূর্ণিমা। বৈশাখী পূর্ণিমা তিথিতে তথাগত ভগবান বুদ্ধের জন্ম, বুদ্ধত্বলাভ ও মহাপরিনির্বাণ লাভ করেন।
সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

About the Author: Nivvana TV

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!