মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন ধর্মানন্দ ভিক্ষু

দীর্ঘদিন যাবত মরণ ব্যাধি ক্যান্সারের সাথে যুদ্ধ করে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন শ্রদ্ধেয় ধর্মানন্দ ভিক্ষু। ১৫ ডিসেম্বর দিবাগর রাত ১.৩৭ মিনিটে মৃত্যুর কোলে ঢলে পরেন চট্টগ্রাম মেডিকেলের ৩৭ নং ওয়ার্ডের ১ নং বেডে। মৃত্যুকালে ভান্তের বয়স ছিল ২০ বছর। (অনিচ্চা বথ সাংখারা)

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। এদিকে মৃত্যুর পর ভান্তের মরদেহ ভোরে নন্দনকানন বৌদ্ধ বিহারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে সকাল ৭.৩০ মিনিটে ভান্তের প্রথম অনিত্য সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে সকাল ৯ টায় ভান্তের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কাতালগঞ্জস্থ নবপন্ডিত বৌদ্ধ বিহারে। সেখানে দ্বিতীয় অনিত্য সভা শেষে ৯.৩০ মিনিটে নিজ গ্রাম বোয়লখালীস্থ সারোয়াতলী ত্রিরত্ন বৌদ্ধ বিহারের উদ্দ্যেশে রওনা হয়। বিহার প্রঙ্গনে আজ বিকেলেই ভান্তের অন্তষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হবে।

ভান্তের জন্মস্থান চট্টগ্রামের বোয়লখালী উপজেলার সারোয়াতলী গ্রামে। পিতার নাম দুলাল বড়ুয়া। ভান্তের গৃহী নাম ছিল সাগর বড়ুয়া। এস.এস.সি পরীক্ষার পর তিনি শ্রামণ্য ধর্মে দীক্ষা লাভ করে নিজ গ্রামের ত্রিরন্ত বৌদ্ধ বিহারে অবস্থান করছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্লাড ক্যান্সারে ভূগছিলেন।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!