ভক্তদের ভালোবাসা পেয়েছি : নিশিতা বড়ুয়া

  • শ্রোতাপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী নিশিতা। ২০০৬ সালে ক্লোজআপ ওয়ান প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু।বর্তমান সময়ে গান নিয়ে পার করছেন ব্যস্ত সময়।‘নয়নের নয়ন বন্ধু’ শিরোনামে একটি গানের মিউজিক ভিডিও ইউটিউবে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর আবারও সম্প্রতি তার আর একটি নতুন গান ‘তুমি আমি’ শিরোনামে ইউটিউবে প্রকাশ পেয়েছে। সম্প্রতি দর্শক নন্দিত এই শিল্পীর একটি সাক্ষাতকার প্রকাশ করেছে সৃজনমিউজিক। সেই সাক্ষাতকারটি পুণঃ প্রকাশ করা হলো।-বি.স।

‘জনঅরণ্যের মাঝে আমি দাঁড়িয়ে। গলা ছেড়ে গাইব, গানের দু-এক কলি গাওয়ার পরই বিস্ময়ে থেমে যেতে হলো। কারণ চারপাশে সবার কণ্ঠে ছড়িয়ে পড়েছে একই সুর। তারা গাইছে গলা ছেড়ে, ‘বন্ধু তোমায় মনে পড়ে…।’ দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ এভাবে প্রতিটি গানের সঙ্গেই দর্শক-শ্রোতা হয়ে যাচ্ছে আমার গানের শিল্পী। এমনই এক স্বপ্ন ঘুমের মাঝে প্রায়ই ধরা দেয়। অনেক সময় জেগে থেকেও এমন দৃশ্য কল্পনা করি।” বললেন ক্লোজআপ ওয়ান তারকা নিশিতা বড়ূয়া।

এমন কল্পনার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমার কখনও মনে হয় না শিল্পী হতে পেরেছি। শিল্পী বলে দাবিও করি না। কারণ শিল্পী হতে যেমন সাধনা প্রয়োজন তেমনি এমন কিছু গান গেয়ে যাওয়া, যা যুগ যুগ ধরে মানুষের মনে স্থান পাবে। এ কথা ঠিক, অনেকদিন ধরে গাইছি। আমার গাওয়া ‘বন্ধু তোমায় মনে পড়ে’, ‘হিয়া’সহ আরও কয়েকটি গান শ্রোতাদের ভালোলাগার তালিকায় স্থান পেয়েছে। কিন্তু হাতে গোনা কয়েকটি গান দিয়ে কি নিজেকে শিল্পী বলে দাবি করা যায়? যায় না বলেই এখনও শিল্পী হওয়ার সাধনা করে যাচ্ছি।”

নিশিতার এ কথা মেনে নেওয়া গেল। কিন্তু এখন প্রশ্ন হলো, যার স্বপ্ন শিল্পী হওয়া, তিনি ১১ বছরের ক্যারিয়ারে মাত্র একটি একক অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন কেন? এর জবাবে নিশিতা বলেন, ‘অ্যালবাম হওয়া উচিত এমন, বিভিন্ন দর্শকের ভালো লাগার মতো বেশ কিছু গান থাকবে। চাইলে তো ক’দিন পরপরই অ্যালবাম করতে পারি, কিন্তু যদি তা শ্রোতার মনে দাগ না কাটে- তাহলে অহেতুক সংখ্যা বাড়িয়ে লাভ কী?

তারচেয়ে দীর্ঘ সময় নিয়ে ভালো গানের চেষ্টা করে যাওয়া কি ভালো নয়? আমি সে চেষ্টাই করছি।’ তাহলে যেসব ভক্ত দিনের পর দিন নতুন অ্যালবাম বা গানের প্রতীক্ষায় থাকেন, তাদের কথা কি ভাবেন না? “ভাবব না কেন। ভক্তদের ভালোবাসা পেয়েছি বলেই তো এখনও গাইছি। হয়তো অ্যালবাম করা হয়নি, কিন্তু মিশ্র অ্যালবামে এবং প্লেব্যাকে একটা দুটো করে নতুন গান করেছি। ভক্তদের প্রত্যাশা পূরণের জন্য ক’দিন আগে প্রকাশ করেছি একক গান। ‘আমি তুমি’ শিরোনামের এই গানের কথা ও সুর জাহাঙ্গীর রানার, সঙ্গীতায়োজন করেছেন শান শেখ।

অনলাইনে গানটি প্রকাশের পর ভক্তদের অনেকেই তাদের ভালোলাগার কথা জানিয়েছেন। ভাবছি এভাবেই মাঝে মাঝে তাদের জন্য নতুন কিছু গান করব। আর অ্যালবাম করছি না, কারণ এখন একক গানের জোয়ার বইছে। তারপরও আমি কিন্তু বসে নেই। প্রতিনিয়ত নতুন গানের পরিকল্পনা করছি। অ্যালবামেরও পরিকল্পনা আছে। কিন্তু সেটি ভিন্ন ধাঁচের গান দিয়ে সাজাতে চাই। তার জন্য অনেকটা সময় ব্যয় করতে আপত্তি নেই।”

নিশিতার কথায় জানা গেল দীর্ঘ বিরতির পর অ্যালবাম তৈরি করছেন তিনি। জানালেন, এরইমধ্যে বেশ কিছু গীতিকার ও সুরকারের সঙ্গে নতুন সংকলনের জন্য নিরীক্ষাধর্মী কাজও করছেন। কিন্তু কার লেখা এবং সুর করা গান থাকছে সে বিষয়ে তিনি নিশ্চুপ। আগেই ঢাকঢোল পিটিয়ে কিছু জানাতে চান না তিনি। খবরটা একটু গোপন থাকুক- সেটাই চাইছেন। এই গোপনীয়তার কারণ জানতে চাইলে নিশিতা বলেন, ‘আগেভাগেই সব বলে দিলে, কেউ কেউ এখনই জল্পনা-কল্পনা শুরু করে দেবেন। দেখা গেল, তাদের ধারণার সঙ্গে কাজের ধরন মেলেনি, তখন বিষয়টা কেমন দাঁড়াবে? এটা ভেবেই আপাতত চুপচাপ আছি।

শুধু একটু বলতে পারি, এ পর্যন্ত সঙ্গীতের যা কিছু শিখেছি, তার সর্বোচ্চটা এ আয়োজনে তুলে ধরার চেষ্টা করছি। নতুন ধারার কাজের মধ্য দিয়ে নিজেকে ভাঙারও ইচ্ছা বহুদিনের। এবার সে দিকেও খেয়াল রাখছি।’

নিশিতার এ কথায় স্পষ্ট হলো, সমকালীন তরুণ গায়ক-গায়িকাদের থেকে তার চিন্তাধারা কতটা আলাদা। যে জন্য তার গায়কীতে শ্রোতারা যেমন ভিন্ন ধাঁচের গান শোনার সুযোগ পেয়েছেন, তেমনি বহুবার প্রত্যাশার ডালা নিয়ে সামনে দাঁড়িয়েছেন। হয়তো অসংখ্য গান উপহার দিতে পারেননি নিশিতা, কিন্তু যে ক’টি গান প্রকাশ করেছেন, কম বেশি তার সব গানই অনেকের মনে আঁচড় কেটেছে। সে সুবাদে নিশিতাও পেয়েছেন অভিনন্দন, শুভেচ্ছা, ভালোবাসা এবং আর একধাপ এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা। আর এটাকেই নিশিতা গায়কী জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন বলে মনে করেন। তিনি বলেন, ‘শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখলেও আমার বড় তারকা হওয়ার বাসনা নেই। আমার প্রত্যাশাও সীমিত। তাই যেটুকু ভালোবাসা পেয়েছি তাতেই তৃপ্ত।’

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!