বৌদ্ধ বিহারে হামলার সন্দেহে ৪ রোহিঙ্গা আটক

কক্সবাজারের উখিয়া থানা পুলিশ গোপন সুত্রের খবরের ভিত্তিতে গতরাতে এক অভিযান চালিয়ে হলদিয়া পালং ইউনিয়নের মরিচ্যা গোরাইয়ার দ্বীপ পাড়ার একটি ঘর থেকে এক নারীসহ ৪ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে। পুলিশের কাছে খবর ছিল-মরিচ্যার দীপংকর বৌদ্ধ বিহারে রাতের কোন এক সময়ে হামলা চালাতে পারে সন্দেহে সেখানে অভিযান চালানো হয়।

ঘটনাটি নিয়ে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ড.এ কে এম ইকবাল হোসেন জানিয়েছেন, তিনি ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছেন।

উখিয়ার মরিচ্যা বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাবুল বড়ুয়া গতরাতে জানান, ২০১২ সালের ২৯/৩০ সেপ্টেম্বর রাতে হামলার ঘটনায় মরিচ্যা দীপংকর বৌদ্ধ বিহারটিও আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। সেই বিহার পুড়ার একজন আসামির ঘরে গতকাল ২৫ জন রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছিল। এ ঘটনা নিয়ে স্থানীয়রা বলেছেন-আরো একটি বড় নাশকতা থেকে রক্ষা মিলেছে।

স্থানীয় লোকজন সন্দেহ করেন-মিয়ানমারের সহিংসতা পরিস্থিতিতে এখানে আরো একটি বড় নাশকতা ঘটানোর জন্য এসব রোহিঙ্গাদের আনা হয়েছিল। পুলিশের অভিযানে আটক নারী ও তিন রোহিঙ্গা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে তারা মিয়ানমার থেকে এসেই গোরাইয়ার দ্বীপের বিহার পুড়া আসামির ঘরে আশ্রয় নিয়েছিল। ওই ঘরে তারা ২৫ রোহিঙ্গার দল লুকিয়েছিল। অন্যান্যরা পালিয়ে যায় বলে আটক হওয়া রোহিঙ্গারা স্বীকার করেন।

গতরাতে উখিয়া-টেকনাফের সহকারি পুলিশ সুপার চাইলাউ মারমা জানান-আটক হওয়া ৪ রোহিঙ্গাকে পুশব্যাক করার জন্য বিজিবি’র হাতে দেয়া হবে।

সুত্রঃ কালের কন্ঠ।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!