বৌদ্ধ এবং খ্রিষ্টানদের অহিংসার বাণী প্রচারে একত্রে কাজ করার আহবান ভ্যাটিকান কর্তৃপক্ষের

বৌদ্ধদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব বেশাখ ডে উদযাপন উপলক্ষে ভ্যাটিকান কর্তৃপক্ষ একটি বানী প্রদান করেছেন, যেখানে তিনি অহিংসার বাণী প্রচারে বৌদ্ধ এবং খ্রিষ্টানদের একত্রে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন। দি ন্যাশনাল ক্যাথলিক রিপোর্টার নামক পত্রিকা বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত প্রতিবেদন তুলে ধরেছে।
খ্রিশ্চিয়ান এণ্ড বুড্ডিস্ট : ওয়াকিং টুগেদার অন দি পথ অব ননভায়োলেন্স” শীর্ষক বাণীটি প্রকাশ করেছে পোপসম্পর্কীয় আন্ত:ধর্ম কাউন্সিল। বাণীটিতে কাউন্সিলের দুজন নেতা স্বাক্ষর প্রদান করেছেন তারা হচ্ছেন, কার্ডিনাল জিন-লুইস তাউরান এবং বিশপ মাইকেল এজ্ঞেল আইসু গুইজট।
যীশু খ্রিষ্ট এবং গৌতম বুদ্ধ উভয় অহিংসা প্রচারক এবং শান্তির দূত। এ মহান ব্যক্তিদ্বয়ের শান্তির বাণী প্রচার হওয়াও সত্বেও সমাজের নানা অংশে নানা কারণে সন্ত্রাণ, হানাহানি, রাহাজানি পরিলক্ষিত হয়।
বাণীটিতে গৌতম বুদ্ধ প্রচারিত ধম্মপদ থেকে একটি উদ্বৃতি তুলে দিয়ে দেখানো হয়েছে কিভাবে বুদ্ধ শান্তির কথা প্রচার করেছেন। উদ্বৃতিটি হচ্ছে : মৈত্রীর দ্বারা ক্রোধ জয় করবে, সাধুতা দ্বারা অসাধুতাকে জয় করবে, ত্যাগের দ্বারা কৃপণকে জয় করবে, সত্যের দ্বারা মিথ্যাবাদীকে জয় করবে। বাণীটিতে বলা হয়, অনেকগুলো ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে বৌদ্ধ এবং খ্রিষ্টানরা একত্রে অহিংসা প্রচারে কাজ করতে পারে।
যদিও খ্রিষ্টান এবং বৌদ্ধ দুটি আলাদা ধর্ম তবুও দেখা যায় উভয় ধর্মেই পাওয়া যায় সন্ত্রাসের বহি:প্রকাশ ঘটে মূলত মানুষের অন্তর থেকেই। এই বড় মিলটাকে কাজে লাগিয়ে আমরা আমাদের অনুসারীদের নিয়ে কাজ করতে পারি, তাদের উপদেশ দিতে পারি যাতে আমাদের অন্তরে হিংসাত্মক বিষয়গুলো স্থান নিতে না পারে। বিশেষ করে শিশুদের বেড়ে উঠার সময় তাদেরকে এই বিষয়গুলো শিক্ষা দেওয়া খুবই জরুরী। বেশাখ ডে উপলক্ষে সারা বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা হউক এই কামনা ও প্রার্থনা করা হয়।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

2 Comments

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!