বনভান্তের জন্মভূমি মোরঘোনায় ৪র্থবারের মত ধর্মীয় অনুষ্ঠান সম্পন্ন

আজ ২রা জানুয়ারি ২০১৮ইং, তারিখে পরমপূজ্য শ্রাবকবুদ্ধ বনভান্তের জন্মভূমি মোরঘোনায় স্মৃতি চৈত্যর জায়গায় ৪র্থবারের মত ধর্মীয়ভাব গাম্ভীর্যপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠান সুসম্পন্ন হয়। সকাল ৭.৪৫ মিনিতেই পরমপূজ্য বনভান্তের শিষ্যসংঘের প্রধান তথা রাজবন বিহারের আবাসিক প্রধান শ্রদ্ধেয় প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবিরের নেতৃত্বে পূজনীয় ভিক্ষুসংঘ এবং শ্রামণসংঘ লঞ্চযোগে মোরঘোনায় উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

সকাল ৯.০০ ঘটিকায় পূজনীয় ভিক্ষুসংঘ এবং শ্রামণসংঘ অনুষ্ঠান মঞ্চে আসন গ্রহণ করেন। এরপরে মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সূচনা করা হয়। মঙ্গল প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করেন শ্রীমৎ, প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবির মহোদয়, শ্রীমৎ, জ্ঞানপ্রিয় মমহাস্থবির মহোদয়, মোরঘানায় স্মৃতি চৈত্যর অধ্যক্ষ শ্রীমৎ, সংকিচ্ছ স্থবির মহোদয় এবং চাকমা রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, প্রাক্তন উপমন্ত্রী বাবু, মনিস্বপন দেওয়ান। এরপরে উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করা হয়। উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী, জোনাকী চাকমা। এরপরেই পঞ্চশীল গ্রহণসহ দানীয়কার্য সম্পাদন করা হয়। দানের মধ্যে ছিল বুদ্ধমূর্তি দান, সংঘদান, অষ্টপরিস্কার দানসহ নানাবিধ দান। বিশেষ প্রার্থনা পাঠ করেন মমতা চাকমা।

স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন উপজেলা সদর বালুখালী চেয়ারম্যান অরুন কান্তি চাকমা, রাজবন বিহারের সহসভাপতি নিরুপা দেওয়ান, রাজবন বিহারের পৃষ্ঠপোষক সাবেক উপমন্ত্রী মনিস্বপন দেওয়ান, রাজবন বিহারের পৃষ্ঠপোষক চাকমা রাজা ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়। সমবেত পুণ্যার্থীদের উদ্দেশ্য সদ্ধর্ম দেশনা প্রদান করেন জ্ঞান প্রিয় মহাস্থবির মহোদয়, প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবির মহোদয়।

এই ধর্মীয় পুণ্যানুষ্ঠানে বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার সদ্ধর্মপ্রাণ উপাসক-উপাসিকা অংশগ্রহণ করেন এবং সরকারি-বেসকারি কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র: Samma Ditti.

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!