“পূজ্য বনভান্তের অন্যতম শিষ্য ভদন্ত প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবিরের ৬৬ তম জন্ম বার্ষিকী অনুষ্ঠিত”

সুপ্রিয় চাকমা শুভ, পার্বত্য চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :
শ্রাবক বুদ্ধ পূজ্য বনভান্তের অন্যতম উত্তরসূরি ভদন্ত প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবিরের ৬৬ তম জন্ম বার্ষিকী অনুষ্ঠিত হয়েছে। হাজার হাজার ভক্তদের পুষ্পমাল্য প্রদানের মধ্যে দিয়ে প্রতি বছর ন্যায় এবারেও বিভিন্ন ধর্মীয় ভাব মর্যাদায় খাগড়াছড়ি জেলার ধর্মপুর আর্যবন বিহারে এ দিবসটি পালিত হয়।

শ্রাবক বুদ্ধ পূজ্য বনভান্তের অন্যতম উত্তরসূরি ভদন্ত প্রজ্ঞালঙ্কার মহাস্থবিরের ৬৬ তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে বিহার সহ সমগ্র প্রাঙ্গন বিভিন্ন বেলুন দিয়ে জাঁকমকপূর্ণ করে সাজানো হয়। পূর্ণাথীদের পদচারনায় মুখরিত হয় বিহার প্রাঙ্গন। হাজার হাজার ভক্তদের হাতে দেখা যায় পুষ্পমাল্য।

সকাল ৬ ঘটিকার সময়ে বুদ্ধ পতাকা উত্তোলন, বেলুন উত্তোলন ও কেক কর্তনের মধ্যে দিয়ে এবং ৯ ঘটিকার সময়ে ধর্মপুর আর্যবন বিহার প্রাঙ্গনে ভিক্ষু শ্রামনদের উপস্থিতিতে চম্পানন চাকমার অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান সূচনা করা হয়।
জন্মজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ধর্মীয় সংগীত পরিবেশন করেন সংগীত শিল্পী রুবেল চাকমা । জগতের মঙ্গল কামনায় পঞ্চশীল প্রদান করেন ভদন্ত জ্ঞান প্রিয় মহাথেরো ও পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন উচিৎ ময় চাকমা।

অনুষ্ঠানে সকল সম্প্রদায় ও বিশ্ববাসির মঙ্গল ও অতীতে দেব মানুষ্য মুক্তির কামনায় বুদ্ধ মূর্তি দান, হাজার প্রদীপ দান, অষ্ঠপরিষ্কার দান, নবনির্মিত কিয়ং উৎসর্গ, বিশ্ব শান্তির প্যাগোডার টাকা দান ও পিন্ডুদান সহ নানা বিধ দান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে মং সার্কেল চীফ সাচিংফ্রু চৌধুরী, রাঙামাটি রাজবন বিহারের কার্যনির্বাহী পরিষদের সিনিয়র সহ-সভাপতি গৌতম দেওয়ান, মং সার্কেল রাজ মাতা, প্রাক্তন পার্বত্য উপমন্ত্রী মনিস্বপন দেওয়ান, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান চাথোয়াই অং মারমা ও ধর্মপুর আর্যবন বিহারের কার্য নির্বাহী পরিষদের সদস্য বিন্দু কুমার চাকমা প্রমূখ সহ উপস্থিত ছিলেন।

র্পূণার্থীদের মাঝে সদ্ধর্ম দেশনা প্রদান করেন বনভান্তের শিষ্যসংঘের প্রধান ও রাজবন বিহারের আবাসিক প্রধান ভদন্ত প্রজ্ঞালঙ্কার মহাথেরো। গামারীঢালা বনবিহারের অধ্যক্ষ ভদন্ত বোধিপাল মহাথেরো, ভদন্ত বিশুদ্ধানন্দ মহাথেরো, ভদন্ত শাসন রক্ষিত মহাথেরো, ভদন্ত ভৃগু মহাথেরো সহ ভদন্ত জ্ঞান প্রিয় মহাথেরো সদ্ধর্ম দেশনা প্রদান করেন।

এছাড়া বিকালের অনুষ্ঠান পর্বে ৫ ভিক্ষুকে মহাস্থবির হিসেবে বরন করা হয়।

অনুষ্ঠানের পরিশেষে পরিনির্বান প্রাপ্ত শ্রীমৎ সাধনানন্দ মহাস্থবির (বনভান্তের) অমৃতময় বাণী ক্যাসেট থেকে শোনানো হয়।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!