দান কখনো বৃথা হয়না,দানের ফল মানব জীবনের কর্ম ক্ষেত্রে আস্তে করে প্রতিফলিত হয় -ভৃগু মহাস্থবির

সুপ্রিয় চাকমা শুভ ,স্টাপ রির্পোটার : দান কখনো বৃথা হয়না,দানের ফল মানব জীবনের কর্ম ক্ষেত্রে আস্তে করে প্রতিফলিত হয় বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ফুরমোন সাধনাতীর্থ আন্তর্জাতিক বনধ্যান কেন্দ্রের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ ভৃগু মহাস্থবির। ২৮শে অক্টোবর(শনিবার) সাধনাপুর লুম্বিনী বনবিহারে ৭ম তম দানোত্তম কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, কোন কিছু সঠিক ভাবে না জেনে ধর্ম বিষয়ে মন্তব্য করা কখনও ঠিক নয় । কেননা যখন কোন কিছু না জেনে মন্তব্য করে বলা হয় তখন ধর্মে বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হয়। তেমনি ধর্মতিষ্য ভিক্ষুকে জগৎগুরু উপাধি দিয়ে সমস্যা সৃষ্টি করে তুলেছে অনেকে। জগৎগুরু একমাত্র ভগবান বুদ্ধই হতে পারেন কিন্তু অন্য কেউ তা হতে পারে না। ভগবান বুদ্ধকে জগৎগুরু বলা যেতে পারে । কেননা এক বুদ্ধের শাসনে অন্য ব্দ্ধু কখনো উৎপত্তি হয় না। তিনি আরো বলেন, এই যে বৌদ্ধরা কঠিন চীবর দান,সংঘদান,অষ্টপরিস্কার দান করতেছে সেগুলো কখনো ব্যর্থ হবে না। একদিন সেটি প্রতিফলিত হবে। যারা জ্ঞানী ও পন্ডিত ভগবান বুদ্ধ তাদেরকে সংক্ষিপ্ত করে বুঝিয়েছেন এবং জ্ঞানী ব্যক্তিরা সেটি উপলব্ধি করে বুঝতে পেরে স্বকৃতগামী মার্গফল অনাগামী মার্গ লাভে সক্ষম হয়েছে। সেজন্য বৌদ্ধ ধর্মকে উপলব্ধি করে জ্ঞানার্জন করে অনুস্বরণ করতে হবে।

রাঙামাটি জেলা সদরের ৬নং ওয়ার্ডের ১০২ নং রাঙাপানি মৌজার সাধনাপুর লুম্বিনী বন বিহারে ৭ম বারের মতো দানোত্তম যথাযথ ধর্মীয় ভাব মর্যদায় কঠিন চীবর দান উদযাপিত হয়েছে। তথাগত ভগবান বুদ্ধের সময়ে মহাপূণ্যবতী ,দানবতী,মিগারমাতা মহাউপাসিকা বিশাখা কর্তৃক প্রবর্তিত ঐতিহ্যবাহী শুভ দানোত্তম কঠিন চীবর দান মহাসমারোহে ও ধর্মীয়ভাব গাম্ভীর্যের সহিত সাধনাপুর লুম্বিনী বন বিহারে দানোৎসব উদযাপিত হয় ।

এ শ্রেষ্ঠ দান কার্যের তাৎপর্যপূর্ণ চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে সতাতুম,সুতা রং, কাপড় বুনা ও সেলাই করে চীবর তৈরী করত: অনুত্তর পূণ্যক্ষেত্র পূজনীয় ভিক্ষু সংঘ আগমণের মধ্য দিয়ে ভিক্ষু সংঘের নিকট দান করে ইহকাল ও পরকাল এবং কর্মফলকে বিশ্বাস ও গভীর শ্রদ্ধা রেখে বাচনিক, মানসিক, আর্থিক ও কায়িক ভাবে অধিকতর পরিশ্রম হয় বিধায় ইহা মহাফল লাভ হয় বিশ্বাসের সহিত বিভিন্ন স্থান থেকে সকল সম্প্রদায় শত শত নারী-পুরুষ পূর্ন্যাথী অংশ গ্রহণের সকল বিশ্ব জাতির মঙ্গল ও অতীত দেব মানুেষর মুক্তির কামনায় বুদ্ধ মূর্তি দান,বুদ্ধ মূর্তি দান, সীবলী পূজা, কঠিন চীবর উৎসর্গ, সংঘ দান, অষ্টপরিস্কার দান, কল্পতরু দান, হাজার প্রদীপ দান, পিন্ডুদান সহ নানা বিধ দান অনুষ্ঠিত হয়।

২ দিন ব্যাপী মহাৎসব ১ম ও ২য় পর্ব অনুষ্ঠানে কিনা মোহন চাকমার অনুষ্ঠান সঞ্চালনা ও পঞ্চশীল প্রার্থনার মধ্যে দিয়ে সংগীত শিল্পী রনজিৎ দেওয়ানের উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশনে সাধু সাধু সাধু ধ্বনিতে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্বনুষ্ঠান শুরু করা হয়।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরো স্বধর্ম দেশনা প্রদান করেন রাঙামাটি রাজবন বিহারের সুমন মহাস্থবির ও বিঢুঢ় স্থবির।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!