আগামীকাল সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো’র গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠান চট্টগ্রামে

বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি, ধর্মাধিপতি মহামান্য ২৮তম সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরোর গণসংবর্ধনা ও ৮৬তম জন্মোৎসব  অনুষ্ঠান আগামীকাল ১৫ জানুয়ারি সোমবার নগরীর মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হবে। এতে বিভিন্ন দেশের রাষ্টদূত, আন্তঃধর্মীয় প্রতিনিধি, ব্শ্বি বৌদ্ধ সৌভ্রাতৃত্ব সংঘ, জাতীয় বৌদ্ধ নেতৃবৃন্দ ও দেশ-বিদেশের  অতিথিবর্গ উপস্থিত থাকবেন।

গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আশীর্বাদক হিসাবে ‍উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার দ্বাদশ সংঘরাজ ড. ধর্মসেন মহাস্থবির। প্রধান অতিথি এ্যাডভোকেট মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া এম.পি।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিতব্য গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন।

এছাড়া সকালবেলা সংঘদান, সদ্ধর্মালোচনা, সংঘনায়কের ৮৬তম জন্মোৎসব, ভিক্ষুসংঘের পিন্ডদান ও সমাগত অতিথিবৃদ্ধের মধ্যহ্ন ভোজ অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য,মহাসংঘনায়ক বিশুদ্ধানন্দ মহাথেরো শিষ্য সংঘনায়ক শুদ্ধানন্দ মহাথেরো ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার পদুয়া গ্রামে ১৯৩৩ সালের ১৫ জানুয়ারি জন্মগ্রহণ। তিনি এক বিশ্ববরেণ্য বৌদ্ধ ধর্মীয় ব্যক্তিত্ব। তিনি বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সাথে ১৯৫৪ সালে সম্পৃক্ত হয়ে ১৯৯৫ সাল থেকে এই সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে ঐতিহ্যবাহী বাংলাদেশ বৌদ্ধ ভিক্ষু মহাসভার ২৮তম সংঘনায়ক। এছাড়াও তিনি এশীয় বৌদ্ধ শান্তি সম্মেলন, বিশ্বধর্ম ও শান্তি সম্মেলন, এশীয় ধর্ম ও শান্তি সম্মেলন, বিশ্ববৌদ্ধ সংঘ কাউন্সিল ইত্যাদি বিশ্বসংস্থার বাংলাদেশ অধ্যায়ের সভাপতির পদ অলংকৃত করে এদেশের বৌদ্ধদের মর্যাদা বৃদ্ধি করেছেন। তিনি বিশ্ব বৌদ্ধ সৌভ্রাতৃত্ব সংঘ এর সহ সভাপতি, বিশ্ববৌদ্ধ সংঘ কাউন্সিলের সহ সভাপতি, এশীয় বৌদ্ধ শান্তি সম্মেলন সংস্থার ভারত মহাসাগরীয় শান্তি জোনের চেয়ারম্যান।

বহুগুণে গুণান্বিত এই মহান সংঘমনীষা দীর্ঘ সাংঘিক জীবনে দেশ-বিদেশ থেকে বহু সম্মাননা, অভিধায় অভিষিক্ত হয়েছেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনটি বিশেষ সম্মাননা প্রাপ্তির জন্য তাঁকে গণসংবর্ধনা দেয়ার কর্মসূচি গৃহীত হয়েছে।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে ২০১২ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দ্বিতীয় রাষ্ট্রীয় সম্মাননা একুশে পদক। ২০১৬ সালে থাইল্যাণ্ড সরকারের রাজকীয় সর্বশ্রেষ্ঠ উপাধি ফ্রা বিশুদ্ধিবংশ এবং সর্বশেষ ২০১৭ সালে মিয়ানমার সরকারের সর্বোচ্চ ধর্মীয় উপাধি অগ্গমহাসদ্ধম্মজ্যোতিকাধ্বজ।

সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকে থেকে এখানে প্রকাশিত লেখা, মন্তব‍্য, ছবি, অডিও, ভিডিও বা যাবতীয় কার্যকলাপের সম্পূর্ণ দায় শুধুমাত্র সংশ্লিষ্ট প্রকাশকারীর...

Ads

Recommended For You

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: Content is protected !!